Templates by BIGtheme NET
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

‘সাপমুক্তি’তে শাপমুক্তির উৎসব

পিপলস ভয়েস ডেস্ক:
ইতালির লা আকুইলা প্রদেশের আবরুজো এলাকার বেশ প্রাচীন একটি গ্রাম কোকুলো। একাদশ শতাব্দীতে ওই গ্রামের কৃষি জমিগুলোতে সাপের উপদ্রব মহামারী আকারে দেখা দেয়। সাপের অত্যাচারে রীতিমতো অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেন কৃষকরা, ফসল তুলতে পারেন না ঘরে। ঠিক ওই সময়ই তাদের ত্রাতা হয়ে দেখা দেন স্যান ডমিনিকো ডি সোরা নামের একজন সন্ত। হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা যেমন তার বাঁশির জাদুকরী সুরে হ্যামিলন শহরের সব ইঁদুরকে সরিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন, স্যান ডমিনিকো তেমনই একদিন অলৌকিকভাবে গ্রামকে সাপমুক্ত করেন, যা প্রকারান্তরে গ্রামবাসীর জন্য শাপমুক্তির আশীর্বাদ হয়ে আসে।

সন্ত স্যান ডমিনিকোর সেই অবদানকে আজও মনে রেখেছেন কোকুলো গ্রামের বাসিন্দারা। শুধু মনে রেখেছেন বললে ভুল হবে, প্রতিবছর ঘটনা করেই তারা স্মরণ করেন সেই সন্তকে। আর তা করতে গিয়ে তারা দিনভর হরেক প্রজাতির সাপ জড়ো করে সেগুলো নিয়ে পদযাত্রা করেন শহরের এ মাথা থেকে ও মাথা। আর এই আয়োজনকে তারা বলেন ‘ফেস্তা ডেই সেরপারি’ বা ‘সাপ উৎসব’। তাতে রীতিমতো সাপকে পূজা করেন তারা। এ বছরের সেই ‘সাপ উৎসবে’র কিছু ছবি তুলে ধরা হলো পাঠকদের জন্য।

এই উৎসবের কেন্দ্রবিন্দুতে রাখা হয় কাঠ দিয়ে তৈরি স্যান ডমিনিকো’র একটি প্রতিমূর্তি। তার সারাশরীরে জড়িয়ে দেওয়া হয় বিভিন্ন ধরনের সাপ।

অন্যদের অনেকেই আবরুজো অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরেন।

উৎসবে পূজারীদের জন্য বেদেরা চার প্রজাতির সাপ সংগ্রহ করেন। এবং অবশ্যই এর কোনোটিই বিষধর নয়।

এরপর সাপগুলো জড়িয়ে দেওয়া হয় স্যান ডমিনিকোর প্রতিকৃতিতে। এভাবে ধীরে ধীরে স্যান ডমিনিকোর গোটা প্রতিকৃতি সাপে পূর্ণ হয়ে যায়।

এরপর সেই প্রতিকৃতি নিয়ে পদযাত্রায় বের হন গ্রামবাসী।

যারা পদযাত্রায় বের হতে পারেন না, তারা নিজেদের বাড়িতে থেকেই উৎসাহ দেন পদযাত্রায় অংশগ্রহণকারীদের।

পদযাত্রা শেষ হলে স্যান ডমিনিকোর শরীর থেকে সাপগুলো তুলে নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয় জঙ্গলে।