Templates by BIGtheme NET
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

বাংলাদেশ সফরে আসছে মালয়েশিযার ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে:
মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফরে আসছেন।

২৮ মে মঙ্গলবার পেনাংয়ের পাঁচ তারকা জি-হোটেলে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার পূর্ব আলোচনায় সফরের কথা জানান রাজ্যের গভর্ণর তুন দাতুশ্রী উতামা ড. হাজী আব্দুল রহমান বিন হাজী আব্বাস।

তিনি আরো বলেন, রাজ্যের আন্তর্জাতিক বাণিজ্যবিষয়ক মন্ত্রী দাতু হাজী আব্দুল হালিম হোসেইনের নেতৃত্বে আগামী সেপ্টেম্বরে ৫০ এর অধিক ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফর করবেন।

আর এই সফরে বন্ধুপ্রতিম দেশ হিসেবে মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও জোরদার হবে বলে মন্তব্য করেছেন মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের গভর্ণর তুন দাতুশ্রী ড. হাজী আব্দুল রহমান বিন হাজী আব্বাস।

ইফতার পূর্ব আলোচনার সভাপতিত্ব করেন মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের হাইকমিশনার মহ. শহীদুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, পেনাং রাজ্যে বাংলাদেশের অনারারি কনসাল দাতু শেখ ইসমাইল হোসেইন।

তুন দাতুশ্রী ড. হাজী আব্দুল রহমান বিন হাজী আব্বাস বাংলাদেশের উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

ইফতার ও আলোচনা সভায় গর্ভণর বলেন, এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশের হাইকমিশনের সঙ্গে পেনাং রাজ্যের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের মধ্যে এক গভীর সেতুবন্ধন রচিত হল।

পেনাং রাজ্যের আন্তর্জাতিক বাণিজ্যবিষয়ক মন্ত্রী রাজ্যের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের নিয়ে বাংলাদেশ সফরে যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

হাইকমিশনার মহ. শহীদুল ইসলাম তার বক্তব্যে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে।

তিনি জানান, ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগে এশিয়ার সেরা গন্তব্য হলো বাংলাদেশ। এ সময় বাংলাদেশে ব্যবসা বাণিজ্যের সমৃদ্ধ ইতিহাস উপস্থিত ব্যবসায়ী নেতাদের কাছে তুলে ধরেন হাইকমিশনার মহ.শহীদুল ইসলাম।

ইফতার মাহফিলে অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে ষ্ট্যাট কাউন্সিলর দাতুশ্রী শাহীর ইসমাইল আলাউদ্দিন, দাতুশ্রী ড. হাজী মোহাম্মদ ইউসুফ লতিফ এবং রাজ্যের ইন্দোনেশিয়া, উজবেকিস্তান, পাকিস্তান কন্সাল জেনারেলসহ পেনাং রাজ্যের প্রায় আড়াই শতাধিক ব্যবসায়ী নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের ডিফেন্স অ্যাডভাইজার এয়ার কমডোর মো. হুমায়ূন কবির, প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) মো. রাজিবুল আহসান ।

ইফতার পূর্ব আলোচনা শেষে মুসলিম উম্মাহর শান্তি সম্মৃদ্ধি কামনা করে মোজাত করা হয়। শেষে সরকার প্রধানকে ক্রেস্ট প্রদান করেন হাইকমিশনার মহ. শহীদুল ইসলাম।