Templates by BIGtheme NET
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
ইকুয়েডরের রাজধানী কুইটোতে কারফিউ জারি

ইকুয়েডরের রাজধানী কুইটোতে কারফিউ জারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::
সরকারি সকল দপ্তর রাজধানী কুইটোর বাইরে সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেয়ার পর পরই শহরে জারি করা হয় কারফিউ। জ্বালানি তেলে ভর্তুকি তুলে দেয়ার সরকারি সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ইকুয়েডরে ৬ দিনব্যাপী চলমান তীব্র বিক্ষোভের মধ্যে দেশটির প্রেসিডেন্ট লেনিন মোরেনো সরকারি সকল দপ্তর রাজধানী কুইটোর বাইরে সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। আর এরপর পরই ইকুয়েডরের রাজধানী কুইটোতে কারফিউ জারি করা হয়।

মঙ্গলবার কুইটোর সরকারি কার্যালয়গুলোর কাছে রাত আটটা থেকে ভোর পাঁচটা পর্যন্ত জনসাধারনের চলাচল নিষেধে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট লেনিন মোরিনো। এছাড়া উপকূলীয় শহর গুয়াআকুইলে সরকারি কার্যক্রম স্থানান্তর করেন তিনি।

দেশটির স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলে সম্প্রচারিত এক ভাষণে মোরানো এই চলমান সহিংস বিক্ষোভকে বিরোধীদের ‘অভ্যুত্থানচেষ্টা’ অ্যাখ্যা দিয়ে ভর্তুকি তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হটবেন না বলে দৃঢ়ভাবে জানিয়েছেন। একই সঙ্গে বিক্ষোভ দমনে পুরো শহরজুড়ে কারফিউ জারির ঘোষণাও দেন তিনি।

এদিকে, গত কয়েকদিনের বিক্ষোভে সাড়ে ছয়শরও বেশি বিক্ষোভকারীকে আটক করেছে পুলিশ। সংঘর্ষে আহত হয়েছে ১৯ বেসামরিক নাগরিক এবং ৪৩ জন পুলিশ সদস্য।

সরকারবিরোধী বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন দেশটির আদিবাসীরাও। এ সময় মোরিনোর পদত্যাগ দাবি করেন তারা। এর আগে গত বৃহস্পতিবার থেকে জ্বালানী খাতে সরকারের ভর্তুকি বন্ধের প্রতিবাদে ইকুয়েডরে বিক্ষোভ শুরু হয়।