Templates by BIGtheme NET
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
ঘরের মাটিতে টি-টোয়েন্টিতে ধবল ধোলাই পাকিস্তান

ঘরের মাটিতে টি-টোয়েন্টিতে ধবল ধোলাই পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক::
ঘরের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা পেল স্বাগতিক পাকিস্তান। সিরিজের শেষ ম্যাচ লঙ্কানদের বিপক্ষে ১৩ রানে হারল দলটি।

প্রথম দুই ম্যাচ হেরে সিরিজ হার নিশ্চিত হয়েছিল আগেই। শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার দেয়া ১৪৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভাল হয়নি স্বাগতিকদের। শূন্য রানেই আউট হন ফখর জামান। তবে এরপর দলের হাল ধরেন বাবর আজম ও হ্যারিস সোহেল। এ দুজনে গড়ে তোলেন ৭৬ রান। ১২তম ওভারের শেষ বলে ১৭ রান করে আউট হন বাবর।

তবে বাবর আউট হলেও সরফরাজ ও সোহেল দলকে জয়ের পথে রাখেন। ৫২ রান করে দলীয় ৯৪ রানে সোহেল আউট হওয়ার পরই ভেঙ্গে পড়ে পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপ। বাকিরা ব্যর্থ হলে ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেটে ১৩৪ রান করতে পারে স্বাগতিকরা। ফলে ১৩ রানে ম্যাচ হেরে হোয়াইটওয়াশ হলো দলটি। লঙ্কানদের পক্ষে হাসরাঙ্গা ৩টি ও কুমারা ২টি উইকেট শিকার করেন।

এর আগে লাহোরের গাদ্দাফী স্টেডিয়ামে হোয়াটওয়াশের লজ্জা এড়াতে লঙ্কানদের বিপক্ষে মাঠে নামে স্বাগতিকরা। ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় শ্রীলঙ্কা। লঙ্কানদের শুরুটা ভালো করতে দেননি আমির। মাত্র ২৪ রানে শিকার করেন ইনিংসের প্রথম উইকেট। তবে একাদশে জায়গা পেয়েই তাণ্ডব চালান ওশাডা ফার্নান্দো। ৪৮ বলে তিনি খেলেন ৭৮ অপরাজিত ইনিংস। আট চার আর তিন ছক্কায় সাজান ইনিংসটি। তার ঝড়ো ইনিংসের ওপর ভর করেই ২০ ওভার শেষে ১৪৭ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর পায় শ্রীলঙ্কা।

লঙ্কানদের পক্ষে আর কোনো ব্যাটসম্যানই বড় কোনো স্কোর গড়তে পারেনি। লঙ্কানদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর ছিল ১৩ রান। পাকিস্তানের পক্ষে মোহাম্মদ আমির নেন তিন উইকেট। এছাড়া ইমাদ ওয়াসিম ও ওয়াহাব রিয়াজ নেন একটি করে উইকেট।